মথি ২৩:৯ – পিতার প্রতি অসম্মান?

মথি ২৩:৯—“এখানে ঈসা কি নিজের পিতাকে “পিতা” বলতে নিষেধ করছেন?”

এই আয়াত সঠিকভাবে ব্যাখ্যা করতে হলে প্রসঙ্গ ভালভাবে বুঝতে হবে। ঈসা মসীহ্ এই পুরো অনুচ্ছেদে ইহুদী আলেম ও ফরীশীদের ভণ্ডামির বিরুদ্ধে কথা বলেছিলেন, পারিবারিক সম্পর্কের কথা এখানে বলা হচ্ছে না। এখানে ঈসা ফরীশীদের বিভিন্ন অনুপযুক্ত গুরু-শিষ্য উপাধি মানা করেছিলেন। লম্বা লম্বা নাম দিয়ে ইহুদী ধর্মিয় নেতারা দুনিয়াবী সম্মান পেতে পছন্দ করতেন (আজকাল ইসলামী সমাজে একই রকম দুনিয়াবী সম্মানের ভালবাসা দেখা যায় – “মাহ্বুব-ই-খোদা আল-হজ্জ মাওলানা সূফী-সাধক হযরত…” ইত্যাদি ইত্যাদি)। তখনকার ইহুদী ফরীশীগণ “রাব্বী” (শিক্ষক) এবং “উস্তাদ” উপাধিগুলো ভালবাসতেন এবং তার সঙ্গে নিজেকে বানাতেন তাদের শিষ্যদের “পিতা”। এভাবে অন্য মানুষের কাছে আত্মসমর্পন করার বিরুদ্ধে ঈসা মসীহ্ নিজের অভ্যাস মত hyperbole ব্যবহার করেছিলেন। ঈসা মসীহ্ তার শ্রোতাদের সতর্ক করেছিলেন যে রূহানিক বিষয়ে কোন একজন সীমিত মানুষকে নিজের একমাত্র “উস্তাদ” বা “পিতা” বানানো উচিত না। ঈসা মসীহ্ বলেছিলেন যে ধর্মীয় নেতাদের কথা সবসময় বিনা প্রশ্নে মানা উচিত না বরং নিজেই কিতাব খুলে গবেষণা করা উচিত।

ধর্মীয় নেতার ক্ষেত্রে “পিতা” বললে তার কর্তৃত্ব অতিরিক্ত হয়ে যায়, কারণ ছোটবেলায় যেমন পিতার কথা বিনা প্রশ্নে মানতে হয়, তেমনভাবে ধর্মীয় নেতাদের কথা বিনা প্রশ্নে মানা উচিত নয়। এই পুরো অধ্যায়ের আলোকে বোঝা যায় যে এটাই হল ঈসার কথার সঠিক ব্যাখ্যা।

কোনো প্রশ্ন বা মন্তব্য থাকলে আমরা শুনতে চাই! নিচের ফর্ম দিয়ে যোগাযোগ করুন:

Enable javascript in your browser if this form does not load.

Leave a Reply

Your email address will not be published.