ইঞ্জিল সংকলনের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস

কোরআন এবং ইঞ্জিলের মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ পার্থক্য হল বাণী এবং বাণীবাহকের পার্থক্য। কোরআনের ক্ষেত্রে, কোরআন হল বাণী এবং হযরত মুহাম্মদ (সা) শুধু সেই আল্লাহ্‌র বাণীর বাহক। কিন্তু ইঞ্জিলের ক্ষেত্রে বিপরীত; হযরত ঈসা মসীহ্‌ ছিলেন জীবিত আল্লাহ্‌র বাণী, এবং ইঞ্জিল শরীফ হচ্ছে সেই জীবিত বাণীর লিখিত সাক্ষ্য। ঈসা মসীহ্‌ কোন লিখিত বাণী নিয়ে আসেননি, বরং তার জীবন ও শিক্ষার আল্লাহ্‌-শ্বাশ্বত সাক্ষ্য হিসেবে ইঞ্জিল শরীফ লেখা হয়েছে। কোরআন এবং ইঞ্জিল তুলনা করার আগে এই কথা মনে রাখা দরকার।<p>
ইঞ্জিল শরীফের মূল খণ্ডগুলো হযরত ঈসার সাহাবীরা লিখেছিলেন খ্রীষ্টাব্দ ৫১ থেকে ৯৬ পর্যন্ত, ঈসা মসীহ্‌র বেহেশতে ফিরে যাওয়ার বিশ বছর পর থেকে। এই মূল সুখবর এবং চিঠিগুলো লেখার পরপরই সেগুলোর বিভিন্ন কপি এশিয়া, আফ্রিকা এবং ইউরোপের বিভিন্ন জামাতের কাছে ছড়িয়ে পড়ল। কোরআন শরীফের ক্ষেত্রে যেমন হযরত আবু বকরের এবং হযরত ওসমানের (রা) সর্বপ্রথম কপিগুলো হারিয়ে গেছে, তেমনই ইঞ্জিলের প্রথম কপিগুলো হারিয়ে গেছে। <p>

ইঞ্জিল শরীফের সবচেয়ে পুরানো পাণ্ডুলিপি হচ্ছে <span class=”english” lang=”en”>p52</span> নামক ইউহোন্না ১৮ অধ্যায়ের এক পৃষ্ঠার অংশ যেটা লেখা হয়েছে ১৩৫ খ্রীষ্টাব্দ, অর্থাৎ মূল লেখার মাত্র চল্লিশ বছর পর। ২০০ খ্রীষ্টাব্দ থেকে লূক, ইউহোন্না এবং পৌলের দশটি চিঠির জন্য পাণ্ডুলিপি আছে।<p>
ইঞ্জিল শরীফের সবচেয়ে পুরানো পূর্ণ কপি হচ্ছে ৩০০ শতাব্দীর শেষের দিক থেকে ব্রিটিশ যাদুঘরে অবস্থিত <span class=”english” lang=”en”>Codex Sinaiticus</span>. এই সময় থেকে ইঞ্জিলের জন্য প্রচুর পাণ্ডুলিপি আছে, শুধু মূল গ্রীক ভাষায় ৫,৭০০ পাণ্ডুলিপি।<p>
কোরআন শরীফ এবং ইঞ্জিল শরীফের ইতিহাস নিম্ন টাইমলাইন দিয়ে তুলনা করা যায়:<p>

<hr>
<h5 class=”title5″>অন্যান্য সম্পর্কিত প্রবন্ধ:</h5>
<div class=”indent2″><a href=”https://www.unchangingword.com/ইঞ্জিলের-পাণ্ডুলিপি/”>ইঞ্জিল শরীফের পাণ্ডুলিপির প্রমাণ</a></div>
<div class=”indent2″><a href=”https://www.unchangingword.com/কোরআন-ইঞ্জিলের-সংকলন/”>ইঞ্জিল শরীফ কোন সময়ে লেখা হয়েছিল?</a></div>
<div class=”indent2″><a href=”https://www.unchangingword.com/obj_hist_41Quran-history/”>কোরআন শরীফের সংকলনের ইতিহাস</a></div>
<div class=”indent2″><a href=”https://www.unchangingword.com/ভিন্নপাঠ-ও-লিপিকারের-ত্রুটি/”>ইঞ্জিল এবং কোরআনের পাণ্ডূলিপির মধ্যে ভিন্নপাঠ</a></div>

কোনো প্রশ্ন বা মন্তব্য থাকলে আমরা শুনতে চাই! নিচের ফর্ম দিয়ে যোগাযোগ করুন:

Enable javascript in your browser if this form does not load.

Leave a Reply

Your email address will not be published.