সিন্দুকটা কবে সরিয়েছে?

২ শামুয়েল ৫,৬—“নবী দাউদ কোন্‌ সময়ে সাক্ষ্য-সিন্দুকটা জেরুজালেমে এনেছিলেন; ফিলিস্তিনীয়দের পরাজিত করার পরে (২ শামুয়েল ৫,৬ অধ্যায়) না আগে (১ খান্দাননামা ১৩,১৪ অধ্যায়)?”

এখানে আসলে কোন সমস্যা নেই, কারণ ১ খান্দাননামা ১৫ পর্যন্ত পড়লে জানা যায় যে নবী দাউদ (আঃ) ফিলিস্তিনীয়দের পরাজিত করার পরে সাক্ষ্য-সিন্দুকটি নিয়ে আনলেন। কারণটা হল, বনি-ইসরাইলীয়রা দুই বার সাক্ষ্য-সিন্দুকটি সরিয়ে দিলেন। প্রথমবারে ফিলিস্তিনীয়দের পরাজিত করার আগে এরা বালি-এহুদা থেকে সিন্দুকটা বের করে আনল, যেমন ২ শামুয়েল ৫ ও ৬ অধ্যায়ে ও ১ খান্দাননামা ১৫ অধ্যায়ে বলা হয়। যখন নবী শামুয়েল দাউদের বিজয়ের বর্ণনা শেষ করেন, তখন তিনি প্রথম ও দ্বিতীয় সফরের কথা একসঙ্গে বলেন। কিন্তু ১ খান্দাননামাতে, ঘটনাগুলোর ক্রম এই রকম হয়— প্রথম সিন্দুকটা বালি-এহুদা থেকে বের করে আনা হয়, তারপর দাউদ ফিলিস্তিনীয়দের পরাজিত করেন, এবং তারপর সিন্দুকটা ওবেদ-ইদোমের বাড়ীতে নিয়ে যাওয়া হয়।

তাই এই দুই বর্ণনা পরস্পর-বিরোধী নয়, বরং প্রথম বর্ণনায় সিন্দুকের দুই যাত্রা একসঙ্গে বলা হয়, এবং দ্বিতীয় বর্ণনায় অন্যভাবে ইতিহাসটা বলা হয়েছে। উভয় বর্ণনায় ঘটনার ক্রম একই।

কোরআন শরীফেও এমন ঘটনার ক্রমের জটিলতা রয়েছে—সূরা বাকারাতে প্রথমে হযরত আদম (আঃ)-এর পতনের কথা বলা হয়, তারপর ইসরাইলের প্রতি আল্লাহ্‌র রহমতের কথা বলা হয়, তারপর ফেরাউনের ডুবে যাওয়ার ঘটনা, তারপর হযরত মূসা এবং সোনার বাছুরের মূর্তি, তারপরে মূসার বিরুদ্ধে ইসরাইলের বিরক্তি প্রকাশ, তারপরে সোনার বাছুরের ঘটনা আবার, তারপর মূসা এবং ঈসা, তারপর মূসা এবং সোনার বাছুর আবার, তারপর হযরত সোলায়মান এবং হযরত ইবরাহিম।

কোনো প্রশ্ন বা মন্তব্য থাকলে আমরা শুনতে চাই! নিচের ফর্ম দিয়ে যোগাযোগ করুন:

Enable javascript in your browser if this form does not load.

Leave a Reply

Your email address will not be published.